29 October, 2020

অস্ত্র মামলায় সাহেদকে আদালতে তোলা হচ্ছে

করোনা টেস্টের নামে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমকে আদালতে তোলা হচ্ছে। রোববার (২৬ জুলাই) আদালতে অস্ত্র মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চাওয়া হবে হবে বলে র‌্যাব কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন। শনিবার (২৫ জুলাই) রাতে র‌্যাব সদর দপ্তরের মিডিয়া পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ রাইজিংবিডিকে বলেন, সাহেদকে যখন গ্রেপ্তার করা হয় তখন তার সঙ্গে অস্ত্র ও গুলি পাওয়া যায়। এ ঘটনায় সাতক্ষীরা থানায় অস্ত্র আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলায় রোববার তাকে সাতক্ষীরা দায়রা জজ আদালতে হাজির করে রিমান্ড চাওয়া হবে।। এর আগে ১৬ জুলাই প্রতারণার মামলায় সাহেদকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এরপর মঙ্গলবার (২১ জুলাই) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সাহেদের মামলার তদন্তের দায়িত্ব র্যাবকে দেওয়া হয়। এরই মধ্যে সাহেদ শুধু করোনা টেস্টই নয়- সরকারি চাকরি ও কাজ পাইয়ে দেয়া, জেল থেকে আসামি ছাড়িয়ে দেওয়া, লাখ লাখ টাকার পণ্য কিনে টাকা না দেওয়া, মানুষকে ভয়-ভীতি দেখানো, ব্লাকমেইলিংসহ জিজ্ঞাসাবাদে নানারকম প্রতারনার চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন। ১৫ জুলাই বুধবার ভোরে সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত থেকে গ্রেপ্তার করা হয় সাহেদকে। এর আগে ৬ জুলাই  সাহেদের নিয়ন্ত্রণাধীন উত্তরা ও মিরপুরের রিজেন্ট হাসপাতাল এর দুটি শাখায় অভিযান পরিচালনা করেন র্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। সেখানে করোনা টেস্ট পরীক্ষার নামে পর্যাপ্ত  তথ্য-প্রমাণ বেরিয়ে আসে। সাহেদ নেগেটিভ পজেটিভ সনদ বিক্রি করে এবং বিভিন্ন প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।